Homeলাইফস্টাইলঅঙ্কুর গজানো আলু খেলে চলে যেতে পারেন কোমায়!

অঙ্কুর গজানো আলু খেলে চলে যেতে পারেন কোমায়!

ছবি: সংগৃহীত।

আলুর সবচেয়ে বড় গুণ হলো, এটি যে কোনও তরকারি বা খাবারের সাথে সহজেই খাওয়া যায়। তবে সামান্য কিছু ভুলের কারণে এই আলুই হতে পারে মৃত্যুর কারণ। এমনটি কোমায় চলে যাওয়ার আশঙ্কাও থাকে।

মূলত এই সমস্যা তৈরি হয় আলুর গায়ে অঙ্কুর গজানো অবস্থায় খেলে। অর্থাৎ কোনও আলুর গায়ে যদি অঙ্কুর গজায়, তবে সেই অবস্থায় তা রান্না করা হতে পারে মারাত্মক ক্ষতিকর।

জীববিজ্ঞানীরা বলছেন, আলু গাছ চেষ্টা করে, যাতে কোনও পোকা বা জীবাণু আলুর ক্ষতি করতে না পারে। তাই গাছ নিজেই এতে সোলানাইন নামক বিষ তৈরি করে। যদিও আমরা যে অবস্থায় আলু খাই, তখনও পর্যন্ত এই সোলানাইন তৈরি হতে শুরু করে না। তাই কোনও ক্ষতি হয় না। কিন্তু যখনই এতে অঙ্কুর গজাতে শুরু করে, সঙ্গে সঙ্গে তৈরি হতে থাকে এই বিষ।

আরো পড়ুনঃ   বর্ষায় যেভাবে ঘরের পোকামাকড় দূর করবেন
আরো পড়ুনঃ   এক থোকা আঙুরের দাম ১০ লক্ষ টাকা!

অনেকে আলুর অঙ্কুর কেটে ফেলে দিয়ে বাকিটা রান্না করেন। এটিও নিরাপদ নয়। কারণ সোলানাইন শুধু মাত্র অঙ্কুরে তৈরি হয় না, গোটা আলুতেই তৈরি হয়। ফলে বাকি আলু পেটে গেলেও শরীরে বিষক্রিয়া হতে পারে।

এই আলুতে থাকা সোলানাইন অল্প পরিমাণে শরীরে গেলে বিশেষ সমস্যা হয় না। বড় জোর পেটের আল্প গণ্ডগোল হতে পারে। কিন্তু বেশি পরিমাণে গেলে তা আন্ত্রিকের আশঙ্কা বাড়িয়ে দেয়। অনেকের মাথাব্যথা শুরু হয়। বিপুল পরিমাণে গেলে কেউ কোমায় চলে যেতে পারেন। এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

দীর্ঘ দিন ধরে শরীরে সোলানাইন গেলে স্নায়ুর ক্ষতি হতে পারে। আপাত ভাবে নিরীহ আলুই হয়ে উঠতে পারে বিপজ্জনক। তবে আলু অন্ধকার এবং ঠান্ডা জায়গায় সংরক্ষণ করলে সোলানাইনের উৎপাদন ঠেকানো সম্ভব।

আরো পড়ুনঃ   ক্যানসার প্রতিরোধে আম
আরো পড়ুনঃ   যেভাবে বুঝবেন আপনি একজন মানসিক রোগী

সারাদেশে বৈরি আবহাওয়া, বৃষ্টি হতে পারে দিনব্যাপী

নিম্নচাপে পরিণত হয়ে শক্তি হারানো ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে সারাদেশে বিরাজ করছে বৈরি আবহাওয়া। দেশজুড়ে কোথাও গুঁড়িগুঁড়ি আবার কোথাও মাঝারি বর্ষণ হচ্ছে। বিশেষ করে সকাল থেকে...

সর্বশেষ সংবাদ