Homeঅর্থনীতিটানা চার মাস ধরে কমছে রেমিট্যান্স

টানা চার মাস ধরে কমছে রেমিট্যান্স

চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে শুরু হওয়া রেমিট্যান্স কমার ধারা গত অক্টোবর মাসেও অব্যাহত ছিল। এমনকি একক মাস হিসেবে গত চার মাসের মধ্যে অক্টোবরেই সবচেয়ে কম রেমিট্যান্স এসেছে। গত মাসে প্রবাসীরা ১৬৫ কোটি ডলার সমপরিমাণ অর্থ দেশে পাঠিয়েছেন। আগের অর্থবছরের একই মাসে রেমিট্যান্স আসে ২১০ কোটি ডলার।

চার মাসে প্রবাসীরা ৭০৬ কোটি ডলার সমপরিমাণ অর্থ পাঠিয়েছেন। আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ২০ শতাংশ কম। করোনা শুরুর পর কাজ হারিয়ে কিংবা আতঙ্কের কারণে অনেকে জমানো টাকা নিয়ে দেশে ফেরেন। ফলে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে গত অর্থবছর রেমিট্যান্সে বেশি প্রবৃদ্ধি হয়। আবার কাজ হারিয়ে প্রবাসী কর্মীরা যে হারে দেশে এসেছেন, নতুন করে বিদেশে যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন সে তুলনায় অনেক কম। এসব কারণে দুই শতাংশ হারে সরকারি প্রণোদনা অব্যাহত থাকার পরও গত অর্থবছরের তুলনায় রেমিট্যান্স এভাবে কমছে।

আরো পড়ুনঃ   ডিসেম্বরে ৬ শতাংশ ছাড়িয়েছে মূল্যস্ফীতি
আরো পড়ুনঃ   ডিএসইতে প্রধান সূচক বেড়েছে ৩৯ পয়েন্ট, সিএসইতে ১শ ৫৩

রেমিট্যান্স ব্যাপকভাবে কমলেও করোনাভাইরাসের টিকা কেনা ও আমদানি চাহিদা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন কারণে ডলারের চাহিদা বেড়েছে। এরকম পরিস্থিতিতে বাজার ঠিক রাখতে বিভিন্ন ব্যাংকের চাহিদার বিপরীতে গত প্রায় আড়াই মাসে ১৫০ কোটি ডলার বিক্রি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

আখাউড়া ইমিগ্রেশন দিয়ে বিশেষ অনুমতি নিয়ে যাত্রীরা ফিরছেন নিজ দেশে

আখাউড়া প্রতিনিধি: দু’দেশের সীমান্ত বন্ধের ফলে বাংলাদেশ ও ভারতে আটকে পড়াদের অনেকে বুধবার সকাল থেকে বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ভারতীয় হাইকমিশনের তালিকা...

সর্বশেষ সংবাদ