Homeলাইফস্টাইলভুলে যাচ্ছেন? যেসব খেলে ভালো থাকবে স্মৃতিশক্তি

ভুলে যাচ্ছেন? যেসব খেলে ভালো থাকবে স্মৃতিশক্তি

অনেকে বাইরে বেরোনোর সময় প্রয়োজনীয় জিনিস নিতে ভুলে যান। কিন্তু টুকটাক ভুলে যাওয়ার বিপরীতে যদি হয় ঘন ঘন ভুলে যাওয়া, তাহলে বিষয়টি উদ্বেগের। তবে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মস্তিষ্কের ক্ষমতা কমতে থাকে। তাই বার্ধক্যজনিত কারণে ভুলে যাওয়ার সমস্যা স্বাভাবিক। কিন্তু কম বয়সেই এই ভুলে যাওয়ার সমস্যা যখন অবহেলার কারণে গুরুতর আকার ধারণ করে, তখন তা ডিমেনশিয়া বা স্মৃতিভ্রমের আকারও পেতে পারে।

স্মৃতিভ্রমের বেশ কয়েকটি কারণ আছে। এরমধ্যে রয়েছে শরীরে পর্যাপ্ত ভিটামিন ও খনিজের অভাব এবং মস্তিষ্কে পর্যাপ্ত পরিমাণ রক্ত সঞ্চালনের অভাব। এছাড়া বিভিন্ন রোগের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ও অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসও উল্লেখযোগ্য।

এসবের মধ্যে কয়েকটি কারণ কেউ চাইলে সংশোধন করতে পারে। সুষম খাদ্যাভ্যাস সকলের জন্য জরুরি। মস্তিষ্ক যদি পর্যাপ্ত পুষ্টি পায়, তবে ভুলে যাওয়ার সমস্যা কমতে পারে। পুষ্টিকর খাদ্য খাওয়ার পাশাপাশি খাবার তালিকায় যোগ করুন সেই খাবারগুলো, যেগুলো স্মৃতিভ্রংশ রোধে সাহায্য করতে পারে।

আরো পড়ুনঃ   ঠোঁট দেখেই নির্ণয় করা যাবে সুস্থতা

শাকসবজি
পালং শাক, ব্রকোলি, ফুলকপি, ক্যাপসিকাম, গাজরের মতো সবজিতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ফোলেট, ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড, ফ্ল্যাভোনয়েডস, ভিটামিন-ই, আয়রন, ভিটামিন বি ও ক্যারটিনয়েড উপাদান। এগুলো মস্তিস্কে স্মৃতি ধরে রাখতে সাহায্য করে। ব্রেনকে আরও কার্যক্ষম করে তোলে।

আরো পড়ুনঃ   নিয়মিত তিন ব্যায়ামে ঘরে থেকেই ওজন কমানো সম্ভব

বাদাম, আখরোট
রোজ একমুঠো বাদাম খাওয়া স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধির জন্য দারুণ কার্যকর। আখরোট, চিনাবাদাম ও কাজুবাদাম, আমন্ডে থাকে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা থ্রি, ওমেগা সিক্স ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন বি সিক্স ও ভিটামিন ই। যা স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

ডার্ক চকোলেট
চকোলেট খেতে ভালোবাসতেই পারেন। তবে চেষ্টা করতে হবে ডার্ক চকোলেট খেতে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডার্ক চকোলেট মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়াতে সহায়ক। পুষ্টিবিদদের মতে, ডার্ক চকোলেটের মধ্যে দ্রবণীয় ফাইবার ও খনিজ রয়েছে। এগুলো শরীরের অন্যান্য রোগও দূরে রাখে। সঙ্গে মস্তিষ্কের পুষ্টি যোগায়।

আরো পড়ুনঃ   শাশুড়িকে দেখলে হাত-পা কাঁপে! এই ভয়ের নাম জানেন?

কফি
দীর্ঘকালীন স্মৃতিশক্তি বাড়াতে কফি দারুণ কাজে দেয়। যদিও ক্যাফেইনের প্রভাব শরীরে নানাভাবে পড়তে পারে, তাই বুঝেশুনে খাওয়া উচিত।

সামুদ্রিক মাছ
স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে মস্তিষ্কের পুষ্টি জোগাতে সাহায্য করে সামুদ্রিক মাছ। প্রতিদিন না হলেও, সপ্তাহে দু’দিনও যদি মাছ খাওয়া যায়, তা মস্তিষ্কের জন্য খুবই উপকারী। ডিমেনশিয়ার রোগীদের সামুদ্রিক মাছ খাবার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

আরো পড়ুনঃ   শাশুড়িকে দেখলে হাত-পা কাঁপে! এই ভয়ের নাম জানেন?

সূত্র: দ্য ওয়াল

সর্বশেষ সংবাদ