Homeসারাদেশসড়ক দুর্ঘটনায় দুই সচিব নিহতের মামলায় বাস চালকের ৯ বছরের কারাদণ্ড

সড়ক দুর্ঘটনায় দুই সচিব নিহতের মামলায় বাস চালকের ৯ বছরের কারাদণ্ড

প্রতীকী ছবি

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই সচিব নিহতের মামলায় বাস চালক আনোয়ার হোসেনকে (৩৫) ৯ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২৪ মে) বিকালে মানিকগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক উৎপল ভট্টাচার্য্য আসামির অনুপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। একইসাথে আসামিকে ২ লক্ষ ৭ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৫ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্ত আনোয়ার হোসেনের বাড়ি ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার কামারখোলা এলাকায়। তিনি পেশায় বাসচালক ছিলেন। নিহতরা হলেন, মহিলা ও শিশু মন্ত্রণালয়ের সচিব রাজিয়া বেগম ও বিসিকের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, ২০১০ সালে ৩১শে জুলাই প্রাইভেটকারযোগে গোপালগঞ্জ যাচ্ছিলেন মহিলা ও শিশু মন্ত্রণালয়ের সচিব রাজিয়া বেগম ও বিসিকের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমানসহ চারজন। কিন্তু ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের শিবালয়ের উথুলী সংযোগ মোড়ের দ্রুতি গতি পরিবহনের একটি বাস ওই প্রাইভেটকারকে চাপা দিলে গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পরে, কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত বলে ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় আহত বাকি দুইজনকে চিকিৎসার জন্য হাসতপালে ভর্তি করা হয়।

আরো পড়ুনঃ   কুমিল্লায় এলো আরও ৯২ হাজার ৮শ ডোজ করোনা টিকা
আরো পড়ুনঃ   নিজেকে জীবিত প্রমাণ করতে ঘুরছেন তারা

এ ঘটনায় বিসিকের এজিএম শামসুল হক বাদী হয়ে শিবালয় থানায় মামলা করেন। মামলার বাসচালক আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর জামিনে বের হয় পলাতক থাকেন আসামি।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও বরংগাইল হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই নুরুল ইসলাম ভূইয়া তদন্ত শেষে ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলায় ১০ জনের স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক এ রায় দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পিপি মথুরনাথ সরকার জানান, মামলায় তিনটি ধারায় আসামিকে ৯ বছর কারাদণ্ড এবং দুই লক্ষ ৭ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৫ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারক। একই সাথে জরিমানার টাকা সমান হারে দুই নিহতের পরিবারের মাঝে বিতরণের নির্দেশও দিয়েছেন।

আরো পড়ুনঃ   ফেরিটি ডাঙায় তোলা এখনও অনিশ্চিত

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পিপি মথুরনাথ সরকার রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। কিন্তু মামলার চূড়ান্ত রায়ের সময় আসামিপক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলো না।

আরো পড়ুনঃ   ফেরিতে উঠতে গিয়ে পদ্মায় ডুবলো মাইক্রোবাস

জেডআই/

সর্বশেষ সংবাদ