37.5 C
Chittagong
শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪
spot_img

― Advertisement ―

spot_img
প্রচ্ছদতথ্য প্রযুক্তিগাজীপুরের বেনু ভিটায় মহাকাশ দেখার আনন্দময় আয়োজন

গাজীপুরের বেনু ভিটায় মহাকাশ দেখার আনন্দময় আয়োজন

সুসংবাদ ডেস্ক:

যারা মহাকাশের চাঁদ-তারা আর গ্রহ-নক্ষত্রের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হন, তারা অনায়াসে ঘুরে আসতে পারেন গাজীপুরের বেনু ভিটায়। দেশে প্রথমবারের মতো গড়ে ওঠা বেসরকারি এই মহাকাশ পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে গেলেই অ্যাস্ট্রো-ফটোগ্রাফি আর মহাকাশ দেখার সুযোগ মিলছে।

আগামী প্রজন্মের জন্য এ গবেষণা কেন্দ্রটি প্রতিষ্ঠা করেছেন মুক্তিযোদ্ধা ও জ্যোতির্বিদ শাহজাহান মৃধা বেনু। ছোটবেলা থেকেই আকাশ দেখতে ভালোবাসেন বেনু। তিনি শুধু আকাশই দেখেন না, নক্ষত্ররাজি নিয়ে প্রচলিত পৌরাণিক গল্পগুলো অধ্যয়ন করেন।

গল্প হতো দিনের সূর্যের সাথেও। এভাবে চলতে থাকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা, দিনের পর দিন—সখ্যতা তৈরি হয় গ্রহ, উপগ্রহের সাথে। আকাশ নিয়ে যতো কৌতূহল তার সব উত্তর পেতে চাইতেন তিনি। মহাকাশ বিজ্ঞানের প্রতি ভালোবাসার তাড়না থেকেই গড়ে তোলেন মানমন্দির।

তবে এটিই প্রথম নয়। এর আগেও বেনুর হাত ধরে দেশে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে আরও দুই মানমন্দির। কিন্তু সেগুলোতে নানা প্রতিবন্ধকতার কারণে নতুন করে ঢাকার অদূরে গাজীপুরের বেনু ভিটায় আরও একটি মানমন্দির স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেন বেনু।

মহাকাশ নিয়ে যাদের অসীম আগ্রহ তারা চাইলে, গাজীপুরের শ্রীপুরে ৮০ বিঘার ওপরে নির্মিত এই মান মন্দিরে আসতে পারেন। চার তলা ভবনের ওপরে উঠতে অ্যাস্ট্রো উঠানের মনকাড়া কারুকাজে মুগ্ধ হবেন যে কেউই। এরপর দেখা মিলবে গোল ঘরের। সেখানে ঢুকলে বিরাট এক মাচা। সিঁড়ি দিয়ে ওপরে উঠলেই টেলিস্কোপ। এবারে টেলিস্কোপে আকাশ দেখার পালা।

জ্ঞান পিপাসুদের বিশেষভাবে স্বাগত জানান এই মান মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা। জানালেন, অ্যাস্ট্রো-ফটোগ্রাফি, মহাকাশ পর্যবেক্ষণ কিংবা ছবি তোলার সুযোগ আছে এখানে।

বেনু বলেন, এখানে আসা মানুষদের আগ্রহের উপর ভিত্তি করে তাদেরকে উপদলে ভাগ করে দেওয়া হয়। সেই দলগুলোর সাথে মহাকাশ পর্যবেক্ষণ কিংবা ছবি তোলার সুযোগ পাবেন আগ্রহীরা। কেউ চাইলে নিজেদের গ্রুপ নিয়ে এসেও পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন।

মহাকাশের ছবি তোলার জন্য বিশেষ ব্যবস্থাও রয়েছে সেখানে। এক বিশেষ ক্যামেরা ব্যবহার করে ধারণ করা হয় মহাকাশের ছবি। তবে অন্যান্য ছবির মতো মূহুর্তেই তোলা সম্ভব হয় না এই ছবি। একেকটি ছবি তুলতে বেশ কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয় ক্যামেরাপার্সনকে।

দেশে প্রথমবারের মতো গড়ে উঠা বেসরকারি এই মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ব্যতিক্রমী এক স্থাপনা হিসেবে নজর কাড়ছে বিজ্ঞানীদেরও। মহাকাশ পর্যবেক্ষণ ও গবেষণার জন্য বানানো হয়েছে এটি। বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা থাকলেও, এই অবজারভেটরির মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে মহাকাশ সম্পর্কে জানাতে চান মানমন্দিরের উদ্যোক্তা শাহজাহান মৃধা বেনু।  ক্রেডিট: একাত্তর টিভি