26.9 C
Chittagong
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪
spot_img

― Advertisement ―

spot_img
প্রচ্ছদখেলাধুলাবাংলাদেশের সেমির স্বপ্ন ভাঙলো ভারত

বাংলাদেশের সেমির স্বপ্ন ভাঙলো ভারত

খেলাধুলা ডেস্ক :

আজ লড়াইটা ছিলো ভারতীয় দলের জন্য সেমির টিকিট নিশ্চিত করার সেখানে বাংলাদেশের জন্য সেমির আশা বাঁচিয়ে রাখার। কিন্তু বাংলাদেশের সেই আশা গুড়িয়ে দিয়ে ৫০ রানের জয় তুলে নিয়েছে ভারত।

শনিবার (২২ জুন) অ্যান্টিগায় টসে জিতে ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিং দৃঢ়তায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৯৭ রানের বিশাল পুঁজি পায় ভারতীয়রা।

জবাবে ব্যাট করতে শুরুটা খারাপ হয়নি টাইগারদের। কিন্তু একটি ছক্কা হাঁকিয়ে পরের বলেই হার্দিক পান্ডিয়ার শিকার হন লিটন দাস। ১০ বলে ১৩ রান করেন তিনি। দলের সংগ্রহ তখন ৩৫ রান।

এরপর দলীয় ৬৬ রানের সময় তানজীদ হাসান ৩১ বলে ২৯ রান করে কুলদীপ যাদবের শিকার হলে বেশ চাপেই পড়ে টাইগাররা। যদিও টাইগার দলপতি নাজমুল হোসেন শান্ত কিছুটা প্রত্যয় দেখান কিন্তু অপর দিকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়তে থাকে বাংলাদেশের।

এরপর ভরসার জায়গা দখল করা তৌহিদ হৃদয় ৬ বলে ৪ এবং সাকিব আল হাসান ৭ বলে ১১ করে সাজঘরে ফিরলে আশার আলো ক্ষীণ হতে থাকে বাংলাদেশের জন্য।

দলীয় স্কোর যখন ১০৯ রান তখন ৩২ বলে ৪০ রান করা নাজমুল হোসেন শান্ত জাসপ্রীত বুমরার শিকার হন। এরপর কোনোরকমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন কুলদীপ যাদব। দুটি করে উইকেট নেন হর্শদীপ সিং এবং জাসপ্রীত বুমরাহ। একটি উইকেট পান হার্দিক পান্ডিয়া।

এর আগে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমেই মারকুটে ভঙ্গিতে দলীয় খাতায় রান যোগ করতে থাকেন ওপেনার ও ভারতীয় দলপতি রোহিত শর্মা এবং বিরাট কোহলি।

তবে বেশি আক্রমণাত্মক হতে গিয়ে রোহিত শর্মার উইকেট শিকার করে সাকিব আল হাসান। ১১ বলে ২৩ রান করে রিশাদ হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি।

পাওয়ার প্লের ছয় ওভারে ৫৩ রান তোলে ভারত। নিজের দ্বিতীয় ওভার করতে এসে দুই উইকেট তুলে নেন তানজিম হাসান সাকিব। উইকেট থেকে বেরিয়ে এসে বোল্ড আউট হন বিরাট কোহলি। ২৮ বলে ১ চার ও ৩ ছক্কায় ৩৭ রান করেন তিনি।

এর ঠিক এক বল পরই সূর্যকুমার যাদবকে আউট করেন তানজিম। আগের বলে ছক্কা হাঁকানো ব্যাটার এবার ক্যাচ দেন উইকেটের পেছনে। উইকেটে এসে শুরুর দিকে থিতু হলেও পরে বাউন্ডারি হাঁকাতে শুরু করেন ঋষভ পান্ত। তাকে ফেরান রিশাদ হোসেন।

টানা দুই বলে ছক্কা ও চার হাঁকানোর পরের বলে রিভার্স সুইপ করতে যান পান্ত। কিন্তু ক্যাচ যায় শর্ট থার্ড ম্যানে দাঁড়িয়ে থাকা তানজিমের কাছে। ২৪ বলে ৩৬ রান করে আউট হয়ে যান তিনি। পান্তের বিদায়ের পর আক্রমণের দায়িত্ব কাঁধে নেন শিভাম দুবে।

তাকেও ফেরান রিশাদ। এবারও আগের বলে ছক্কা খাওয়ার পরের বলে ঝুলিয়ে দেন তিনি, তুলে মারতে গিয়ে বোল্ড হয়ে যান শিভাম দুবে। ২৪ বলে ৩ ছক্কা ৩৪ রান করেন তিনি।

যদিও ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের দাপটে তানজীম হাসান সাকিবের খরুচে বোলিং ফিগার ফিকে হয়ে আসে।

অন্যান্য বোলারদের মধ্যে মাহেদী হাসান ৪ ওভার বল করে ২৮ রান দিলেও মোস্তাফিজুর রহমান নিজের ৪ ওভার স্পেলে কোনো উইকেট না পেয়ে ৪৮ রান দেন।

ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ২৭ বলে অর্ধশতক করেন হার্দিক পান্ডিয়া। শেষমেশ নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৯৬ রানে থামে ভারতের রানের চাকা।

বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ দুটি করে উইকেট নেন তানজীম হাসান সাকিব এবং রিশাদ হোসেন। একটি উইকেট নেন সাকিব আল হাসান।

এক উইকেট নিয়ে এবং ৫০ রান করে ম্যাচসেরা হন হার্দিক পান্ডিয়া।