28.8 C
Chittagong
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪
spot_img

― Advertisement ―

spot_img
প্রচ্ছদচট্টগ্রামচলন্ত ট্রেনে ধর্ষণকাণ্ড: আরও একজনকে ধরল রেলওয়ে পুলিশ

চলন্ত ট্রেনে ধর্ষণকাণ্ড: আরও একজনকে ধরল রেলওয়ে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী চলন্ত ট্রেন উদয়ন এক্সপ্রেসে তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় ট্রেনে খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান এস এ করপোরেশনের আরও এক কর্মীকে গ্রেফতার করেছে রেলওয়ে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) ভোরে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থেকে আব্দুর রব রাসেল (২৮) নামে এ যুবককে গ্রেফতার করা হয়।

এ নিয়ে এই ঘটনায় মোট চারজনকে গ্রেফতার করা হলো। গ্রেফতার হওয়া চারজনই ট্রেনে খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান এস এ করপোরেশনের কর্মী। অন্য তিন কর্মী হলেন- মো. জামাল (২৭), মো. শরীফ (২৮) ও মো. রাশেদ (২৭)।

তাছাড়া একই ঘটনায় ট্রেনের পরিচালক (গার্ড) আবদুর রহিমকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে রেলওয়ে।

রাসেলকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম শহীদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, আবদুর রব ঘটনার পর পালিয়ে আত্মীয়ের বাসায় লুকিয়ে ছিলেন। তাকে সেখান থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর আগে গতকাল বুধবার (২৬ জুন) ভোর সাড়ে চারটায় উদয়ন এক্সপ্রেসে এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। চলন্ত ট্রেনটি ওই সময় লাকসাম এলাকা পার হচ্ছিল। ভোরে এ ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি জানাজানি হয় সন্ধ্যার পর।

উদয়ন এক্সপ্রেস সিলেট থেকে মঙ্গলবার রাত ১০টায় চট্টগ্রামের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। চট্টগ্রামে পৌঁছায় গতকাল সকাল আটটায়।

রেলওয়ে পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, ওই তরুণী উদয়ন এক্সপ্রেসে করে চট্টগ্রামে আসছিলেন। তিনি সিলেট থেকে উঠে খাবারের বগিতে অবস্থান করেন।

ওই সময় খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের কয়েকজন কর্মী তরুণীকে প্রথমে উত্ত্যক্ত এবং পরে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ করেন। ওই তরুণী আত্মীয়দের সঙ্গে ভৈরবে থাকেন।

তবে তিনি সিলেটে গিয়েছিলেন ভাইয়ের বাসায়। তার বাড়ি বান্দরবানে। তিনি বাড়িতে যাওয়ার জন্যই চট্টগ্রামে আসছিলেন।

এদিকে এ ঘটনার পর চট্টগ্রাম-সিলেট রুটে চলাচলকারী উদয়ন ও পাহাড়িকা এক্সপ্রেসে খাবার সরবরাহকারী এস এ করপোরেশনের কার্যক্রম (ক্যাটারিং সার্ভিস) স্থগিত করা হয়েছে।

গতকাল রাতে রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের প্রধান বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপকের কার্যালয় থেকে এ-সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়।