28.8 C
Chittagong
মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪
spot_img

― Advertisement ―

spot_img
প্রচ্ছদখেলাধুলাটাইব্রেকারে স্লোভেনিয়াকে হারিয়ে কোয়ার্টারে পর্তুগাল

টাইব্রেকারে স্লোভেনিয়াকে হারিয়ে কোয়ার্টারে পর্তুগাল

খেলাধুলা ডেস্ক :

স্লোভেনিয়ার বিপক্ষে পর্তুগালের অসংখ্য সুযোগ নষ্ট হয়েছে। এরপরও ম্যাচের নির্ধারিত ৯০ মিনিটে বহুল প্রতীক্ষিত গোলের দেখা পায়নি পর্তুগাল। কিন্তু সুযোগ আসে অতিরিক্ত সময়ের প্রথম ভাগে পেনাল্টিতে।

পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো যখন পেনাল্টি নিচ্ছিলেন তখন সমর্থকদের চোখেমুখে একধরনের আশা দেখা গেলেও ওই পেনাল্টিটি মিস করেন তিনি।

স্বপ্নভঙ্গের শঙ্কায় কাঁদতেও দেখা যায় রোনালদোকে। তবে শেষ পর্যন্ত গোলরক্ষক দিয়েগো কস্তার অসাধারণ নৈপুণ্যে শঙ্কা দূর হয় সাবেক চ্যাম্পিয়নদের।

ফ্রাঙ্কফুর্টে সোমবার রাতে ২০২৪ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ ষোলোয় স্লোভেনিয়াকে টাইব্রেকারে ৩-০ ব্যবধানে হারায় পর্তুগাল।

স্মরণীয় এই জয়ের দিনে নির্ধারিত সময়ের খেলা গোলশূন্য ড্রয়ে শেষ হওয়ার পর অতিরিক্ত সময়েও গোলের দেখা পায়নি কোনো দলই।

ম্যাচ টাইব্রেকারে গড়ালে স্লোভেনিয়ার প্রথম তিনটি শটই ঠেকিয়ে দেন পর্তুগিজ গোলরক্ষক দিয়েগো কস্তা। বিপরীতে প্রথম তিন শট কাজে লাগাতে সক্ষম হন রোনালদো বাহিনী। ফলে শেষ দুইটি করে শট নেওয়ার প্রয়োজন হয়নি। পুরাদস্তুর এই ম্যাচের হিরো বনে যান কস্তা।

খেলার শুরু থেকেই এলোমেলো আক্রমণ করতে থাকে পর্তুগাল। প্রথম ১৫ মিনিটেই দুবার সতীর্থের ক্রস ছয় গজ বক্সে পেয়েও মাথা ছোঁয়াতে পারেননি রোনালদো। ৩২তম মিনিটে রাফায়েল লেয়াও বক্সের বাইরে ফাউলের শিকার হলে ফ্রি-কিক নেন রোনালদো, এবার বল ক্রসবার ঘেঁষে বেরিয়ে যায়।

বিরতির আগে লেয়াওয়ের কাটব্যাক বক্সের বাইরে পেয়ে নিচু শট নেন জোয়াও পালিনিয়া। বল গোলরক্ষককে ফাঁকি দিলেও পোস্টে বাঁধা পায়।

দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের ধার আরও বাড়ায় পর্তুগাল। কিন্তু কাজের কাজ কিছুতেই হচ্ছিলো না। এর মধ্যে নির্ধারিত সময়ের এক মিনিট বাকি থাকতে সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি রোনালদো।

এবার দিয়েগো জটার থ্রু পাস বক্সে পেয়েও গোলরক্ষক ওবলাকের বরাবর শট নেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এই তারকা। অতিরিক্ত সময়ে জটা বক্সের মধ্যে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় পর্তুগাল। তবে স্পট কিক ঝাঁপিয়ে ফেরান গোলরক্ষক।

পেনাল্টি মিস করলেও টাইব্রেকারে শট নিতে এসে এবার আর মিস করেননি রোনালদো। গোল করে হাত জোড় করে সমর্থকদের কাছ থেকে যেনো পেনাল্টি মিসের জন্য ক্ষমাই চাইলেন রোনালদো।

এর ঠিক পরপরই জালে বল পাঠাতে সক্ষম হন তার দুই সতীর্থ বার্নান্দো সিলভা ও ব্রুনো ফার্নান্দেস। বিপরীতে কস্তাকে পরাস্ত করতে ব্যর্থ হয়েছেন স্লোভেনিয়ার তিন খেলোয়াড়।

তিনটি অসাধারণ সেভ করেছেন পোর্তোর গোলরক্ষক কস্তা। ইউরোর ইতিহাসে প্রথম গোলরক্ষক হিসেবে তিনটি স্পট কিক ঠেকিয়ে দিয়েছেন তিনি। দারুণ নৈপুণ্যে দলকে তুলেছেন শেষ আটে।

আত্মঘাতী গোলে বেলজিয়ামের বিপক্ষে জয় নিশ্চিত হওয়া ফ্রান্স আগামী ৬ জুলাই মুখোমুখি হবে ২০১৬ সালের ইউরো চ্যাম্পিয়ন পর্তুগালের।