28.8 C
Chittagong
সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪
spot_img

― Advertisement ―

spot_img
প্রচ্ছদঅর্থ-বাণিজ্যলেনদেন ২১০ দেশে: তার মধ্যে ৮২ দেশেই বাণিজ্য ঘাটতি!

লেনদেন ২১০ দেশে: তার মধ্যে ৮২ দেশেই বাণিজ্য ঘাটতি!

জাতীয় ডেস্ক :

বিশ্বের ২১০টি দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্যিক লেনদেন হয় জানিয়ে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু বলেছেন, এর মধ্যে ৮২টি দেশের সঙ্গে বাণিজ্য ঘাটতি রয়েছে।

রবিবার সংসদ অধিবেশনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য (এমপি) সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুলের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে এদিন প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

আহসানুল ইসলাম টিটু বলেন, বর্তমানে বিশ্বের ২১০টি দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্যিক লেনদেন রয়েছে। এসব দেশের মধ্যে ৮২টির সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতি রয়েছে।

প্রতিমন্ত্রীর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি বাণিজ্য ঘাটতি রয়েছে চীনের সঙ্গে। দেশটির সঙ্গে বাণিজ্য ঘাটতি ১৭ হাজার ১৪৯ দশমিক ২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

এ ছাড়া ২০২২-২৩ অর্থবছরের হিসাব অনুযায়ী বাংলাদেশের মোট বাণিজ্য ঘাটতি ১৫ হাজার ২৩৯ দশমিক ৫৫ মিলিয়ন ডলার বলে জানান তিনি।

স্বতন্ত্র এমপি আবুল কালামের প্রশ্নের উত্তরে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী জানান, সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ ছাড়া অন্য দেশের সঙ্গে বাণিজ্য ঘাটতি রয়েছে। সার্কভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে ২০১১-১২ অর্থবছরে রপ্তানির পরিমাণ ছিল ৬৭০ দশমিক ৩০ মিলিয়ন ডলার।

২০২২-২৩ অর্থবছরে এ ঘাটতি বৃদ্ধি পেয়ে ২ হাজার ৩৬২ দশমিক ১৫ মিলিয়ন ডলার হয়। একই সময়ে সার্কভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে আমদানি ৫ হাজার ৩৭৪ দশমিক ৭ মিলিয়ন ডলার থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১০ হাজার ১০৩ দশমিক ২ মিলিয়ন ডলারে উন্নীত হয়েছে।

১৫ বছরে ১১ লাখের বেশি নারীকর্মীর বিদেশে কর্মসংস্থান হয়েছে : গত ১৫ বছরে দেশের ১১ লাখেরও বেশি নারীর বিদেশে কর্মসংস্থান হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী শফিকুল ইসলাম চৌধুরী। তিনি জানান, এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি নারীকর্মী সৌদি আরবে গেছেন।

গতকাল সংসদ অধিবেশনে সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের এমপি পারভীন জামানের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এসব তথ্য জানান।

শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ২০০৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত (১১ জুন ২০২৪) ১১ লাখ ১৪ হাজার ৩১২ জন নারীকর্মীর বৈদেশিক কর্মসংস্থান হয়েছে। সৌদি আরবে সব থেকে বেশি নারীকর্মী গেছেন।

আওয়ামী লীগের এমপি নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের উত্তরে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী জানান, চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের মে পর্যন্ত পণ্য খাতে রপ্তানি আয়ের পরিমাণ ৫১ হাজার ৫৪২ দশমিক ৭০ মিলিয়ন ডলার। এ সময়ে সেবা খাতের রপ্তানি আয়ের পরিমাণ পাঁচ হাজার ৮৩ দশমিক ৩৬ মিলিয়ন ডলার।

ঋণখেলাপিদের তালিকা সংসদে প্রকাশের দাবি : স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ বলেছেন, বাংলাদেশ ব্যাংক দেশে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১ লাখ ৮২ হাজার কোটি টাকা বললেও খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৫ লাখ কোটি টাকার কম নয়। একই সঙ্গে এসব ঋণখেলাপির নাম সংসদে প্রকাশ করার দাবি জানান তিনি।